রোহিঙ্গাদের মোবাইল বন্ধে পুলিশের সহায়তা চায় বিটিআরসি

রোহিঙ্গাদের মোবাইল বন্ধে পুলিশের সহায়তা চায় বিটিআরসি।

বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মোবাইল ব্যবহার বন্ধ করতে কক্সবাজার প্রশাসন এবং পুলিশের প্রত্যক্ষ সহায়তা চায় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

তবে তার আগে ব্যবহৃত আট থেকে নয় লাখ সিমের ডেটা পর্যালোচনা করার কাজ শেষ করতে চায় বিটিআরসি।

ইতিমধ্যে বিটিআরসি’র নির্দেশনায় কক্সবাজারের উখিয়া এবং টেকনাফ এলাকায় মোবাইলের নতুন সিম বিক্রি একেবারেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ওই এলাকায় বিকাল পাঁচটা থেকে পরের দিন ভোর ছয়টা পর্যন্ত ১৩ ঘণ্টার জন্যে থ্রিজি এবং ফোরজি সেবা একেবারেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

তাছাড়া ১ সেপ্টেম্বর থেকে পরবর্তী সাত দিনের মধ্যে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প এলাকাগুলোতে মোবাইল ফোনের ব্যবহারও বন্ধ করতে বিটিআরসি নির্দেশনা পাঠিয়েছে মোবাইল অপারেটরদের কাছে।

এর আগে থেকেই মোবাইল ফোন সেবা যাতে রোহিঙ্গা শরনার্থীরা না পায় তার জন্যে কাজ করে আসছিল সরকার। নানা সময়ে নানা নির্দেশনা দেওয়া হলেও সেগুলো সেভাবে কাজ করেনি। আর সে কারণেই এখন পুলিশের সহায়তা নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, বিটিআরসি’র সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের এক কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, তাদের পক্ষ থেকে নানা চেষ্টা করা হয়েছে রোহিঙ্গাদেরকে মোবাইল সেবা না দেওয়ার জন্যে। কিন্তু এর কোনো কিছুই সফল হয়নি।

তবে এখন সরকার যেহেতু বিষয়টি নিয়ে খুব সচেষ্ট তাই তারাও পুলিশ এবং স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে রোহিঙ্গাদেরকে মোবাইল সেবার বাইরে রাখতে চান।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here