ফাইভজি–সমর্থিত দুই আইফোন আসছে

ফাইভজি–সমর্থিত দুই আইফোন আসছে।

মোবাইল ফোনে ফাইভজি ইন্টারনেট এখনো অধিকাংশ মানুষের কাছে স্বপ্নের মতো। তবে মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা অ্যাপল আগামী বছর এ স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে পারে। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান টিএফ ইন্টারন্যাশনাল সিকিউরিটিজের বিশ্লেষক মিং-সি কুয়ো এ ধারণা করছেন।

বিশ্লেষক কুয়ো বলেন, ২০২০ সালে অ্যাপল তিন ধরনের আইফোন আনবে। এর মধ্যে দুটি মডেলে ফাইভজি সমর্থন করার প্রযুক্তি থাকবে। অ্যাপলের আইফোনে প্রথমবারের মতো ফাইভজি প্রযুক্তি যুক্ত হবে আগামী বছর।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ডিজিটাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী বছরের সম্ভাব্য তিনটি আইফোনে ওএলইডি ডিসপ্লে ব্যবহৃত হবে। কুয়োর মতও একই। তাঁর ভাষ্য, ‘আপনি যদি ফোনে ফাইভজি চান, তবে আপনার ৫ দশমিক ৪ বা ৬ দশমিক ৭ ইঞ্চি মডেলের আইফোন নিতে হবে। অন্য ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি মডেলের ফোনটি শুধু ফোরজি নেটওয়ার্ক সমর্থন করবে।’

অর্থাৎ, গত বছর অ্যাপল যা করেছিল, এবারও একই পথে হাঁটবে। এবারেও আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সের মতো দুটি হাইএন্ডের স্মার্টফোন উন্মুক্ত করবে অ্যাপল। এর বাইরে আইফোন এক্সআরের মতো সাশ্রয়ী দামের আরেকটি মডেল আসবে এবার। যদি কুয়োর বিশ্লেষণ অনুযায়ী, ফোনের আকার মিলে যায় তবে আইফোন এক্সএসের পরের সংস্করণের আকার কিছুটা ছোট হবে আর এক্সএস ম্যাক্সের পরের সংস্করণের আকার কিছুটা বড় হবে। এক্সআরের পরের সংস্করণটির আকার একই থাকবে। পরের বছর ফাইভজি–সমর্থিত আইফোন বাজারে এলে গ্রাহকেরা তাঁদের আইফোন দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা উপভোগ করতে পারবেন।

চিপ নির্মাতা কোয়ালকমের সঙ্গে দীর্ঘদিনের মেয়াদ মিটিয়ে ফেলায় অ্যাপলের ফাইভজি আইফোন আনার সম্ভাবনা বেড়েছে।

গত এপ্রিল মাসে কোয়ালকম ও অ্যাপল কয়েক বছর ধরে চলা আইনি লড়াই মেটানোর ঘোষণা দেয়। আইফোনে ফাইভজি মডেম সরবরাহের জন্য কোয়ালকমের ওপর নির্ভর করবে অ্যাপল।

কুয়োর তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালে বাজারে আসা সব আইফোন হবে ফাইভজি নেটওয়ার্ক–সমর্থিত। ওই সময় অ্যাপল নিজেও ফাইভজি মডেম তৈরি করে কোয়ালকমের ওপর নির্ভরতা কমিয়ে ফেলবে। আশা করা যায়, ২০২১ সাল নাগাদ অনেক মানুষের কাছে ফাইভজি নেটওয়ার্ক সুবিধা চলে আসবে।

সূত্রঃ প্রথম আলো

SHARE