‘ক্ষতিকর কনটেন্ট সরাচ্ছে ইউটিউব’

‘ক্ষতিকর কনটেন্ট সরাচ্ছে ইউটিউব’

ঘৃণ্য বক্তব্য প্রতিরোধবিষয়ক নীতিমালায় সম্প্রতি গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন এনেছে ইউটিউব এবং গত তিন মাসে তাদের ভিডিও সেবা থেকে ৯০ লাখের বেশি ভিডিও সরিয়েছে। ক্ষতিকর কনটেন্ট ছড়িয়ে পড়া ঠেকানোর অংশ হিসেবে গুগল এসব পদক্ষেপ নিয়েছে বলে দাবি করেছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাই।

তবে গুগলের প্রধান নির্বাহী স্বীকার করেছেন, ইউটিউব এখন এত বড় প্ল্যাটফর্ম হিসেবে দাঁড়িয়েছে যে এখান থেকে ক্ষতিকর কনটেন্ট পুরোপুরি সরিয়ে ফেলা কঠিন।

গুগলের মালিকানাধীন ইউটিউব কয়েক বছর ধরে বিতর্কিত কনটেন্টের জন্য সমালোচনার মুখে রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির নানা পদক্ষেপের পরেও অনেক বিতর্কিত কনটেন্ট এখানে রয়ে গেছে।

বার্তা সংস্থা সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পিচাই বলেন, ‘আমরা সবকিছু ঠিকঠাক করতে কঠোর পরিশ্রম করছি। কয়েক বছর পরপরই আমাদের নীতিমালায় পরিবর্তন আনতে হয়, কারণ ইউটিউব ব্যবহারের ধরনে পরিবর্তন আসে। গত সপ্তাহে আমরা ইউটিউবের নীতিমালায় বড় ধরনের পর্যালোচনা করেছি। এতে ক্ষতিকর কনটেন্ট ছড়ানোর বিষয়টি আরও গুরুত্ব পেয়েছে।’

পিচাই বলেন, গত প্রান্তিকে ৯০ লাখ ভিডিও সরানো হয়েছে। এটা চলমান প্রক্রিয়া। তবে আমাদের আরও অনেক কিছু করার আছে।’

কনটেন্ট সরানোর কাজে যথেষ্ট লোকবল আছে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে পিচাই বলেন, ‘আমরা মেশিন ও কর্মীর সমন্বয়ে উন্নত সিস্টেম দাঁড় করিয়েছি। তবে বিশাল বড় ব্যবস্থা দাঁড় করানো কঠিন।’

পিচাই বলেন, ‘আমাদের উন্নত ফ্রেমওয়ার্ক দরকার, যাতে ব্যবহারকারীরা তাদের নিজের তথ্য নিয়ে স্বস্তিতে থাকতে পারে। তারা যেন বুঝতে পারে তাদের তথ্যের নিয়ন্ত্রণ তাদের হাতেই রয়েছে। তাই এ ক্ষেত্রে আমাদের আরও ভালো করার সুযোগ রয়েছে।’

সূত্রঃ প্রথম আলো

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here